লকডাউনে কেরানীগঞ্জ জুড়ে গ্রেফতার আতংক, ১৮ জনকে জেল জরিমানা

568
  • কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মহামারি করোনা ভাইরাসের উর্ধ্বমুখী ঠেকাতে সরকারের দেওয়া ৭ দিনের কঠোর লকডাউনের প্রথম দিনে কেরানীগঞ্জের মাঠে রয়েছে সেনাবাহিনী, বিজিবি,পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন। লকডাউন কার্যকর করতে সকাল থেকেই কেরানীগঞ্জের বিভিন্ন সড়কে টহল দিতে দেখা গেছে তাদের।

অন্যদিকে সকাল থেকে বৃষ্টি থাকায় স্বাভাবিক দিনের থেকে কেরানীগঞ্জের সড়কে সাধারণ মানুষের আনাগোনা কম দেখা গেছে। সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে প্রধান সড়কগুলোতে সাধারণ মানুষের চলাচল কম দেখা গেলেও অলিগলিতে চলাচল ছিলোনা বেশ। তাছাড়া পুলিশ,সেনাবাহিনী, বিজিবির টহল দেখতে অনেককেই রাস্তায় বেড় হতে দেখা গেছে। অনেকেই বেড় হচ্ছে লক ডাউন পরিস্থিতি দেখতে। তবে যারা জরুরি কাজে বেড় হয়েছে তাদের কোন সমস্যা হয়নি রাস্তায় চলাচল করতে। দুপুরের পর উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যেমে জেল জরিমানার কথা শুনে পরিস্থিতি প্রশাসনের অনুকূল চলে অনেকটা। যেসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার কথা সেসব প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে চলে যায় অনেকে। তাছাড়া যারা হোটেলে বসে খাবার সরবরাহ করছিলো তারাও তাদের অবৈধ কর্মকাণ্ড বন্ধ করে দেয়। গ্রেফতার হওয়া ব্যক্তিদের  কথা চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে পুরো কেরানীগঞ্জ জুড়ে গ্রেপ্তার আতংক দেখা দেয়।

প্রথমদিনে আদেশ অমান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখা, হোটেলে বসে খাবার সরবরাহসহ অকারে ঘর হতে বেড় হওয়ার অপরাধে ১৪ জনকে সাতদিন করে বিনাশ্রম জেল এবং ৪ জনকে অর্থদণ্ড প্রদান করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। ১ জুলাই দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার কদমতলী ও মডেল থানার রোহিতপুর ও কালিন্দী ইউনিয়নে বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার অমিত দেবনাথ এর ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপস্থিত করে তাদের শাস্তি দেওয়া হয়। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন আরিফ,এনামুল হক, জামাল,জহির,সাইফুল,ইসরাফিল,বাবুল,সোহল রানা, আবুল হাসেম সোহেল প্রমুখ।

এসয়ম তার সাথে ছিলেন ঢাকা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম, কেরানীগঞ্জ মডেল থানার সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসান সোহেল, ২৬ বিজিবি ঢাকা ব্যাটেলিয়নের সুবেদার কবির আহমেদ, কেরানীগঞ্জ মডেল ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ।