বেগম খালেদা জিয়া দীর্ঘদিন পর মুক্তি পেলেন

117

অবশেষে দীর্ঘদিন পর মুক্তি পেলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। দুই শর্তে তাকে মুক্তি দেয়া হয়েছে।

বুধবার (২৫ মার্চ) কারা অধিদফতর থেকে চিঠি পাওয়ার পর তাকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) থেকে মুক্তি দেয়া হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব আব্দুস সাত্তার বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বেলা তিনটা পাঁচ মিনিটের দিকে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেল থেকে মুক্তি দেওয়ার পর পরিবারের সদস্যরা এবং বিএনপির মহাসচিব তাকে গ্রহণ করেন।

এর আগে দুপুর পৌনে ৩টার দিকে খালেদা জিয়ার স্বজনরা হাসপাতালে পৌঁছেন। এ সময় খালেদা জিয়াকে নিয়ে যাওয়ার জন্য কয়েকটি গাড়িও প্রবেশ করে।

খালেদা জিয়াকে বাসায় নিতে তার ভাই শামীম ইস্কান্দার এবং বোন বেগম সেলিমা ইসলাম হাসপাতালে এসেছেন। সঙ্গে রয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়া বিএনপির বেশকিছু নেতাকর্মী হাসপাতালে ভিড় করেছেন। বিএনপি মহাসচিব হাসপাতালে প্রবেশ করলে নেতাকর্মীরা তাকে ঘিরে ধরেন। এসময় তার মুখে কিছুটা বিরক্তির ছাপ দেখা গেছে।

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে দুই শর্তে মুক্তি দেয়া হয়েছে। তাকে বাসায় থাকতে হবে। তিনি দেশের বাহিরে যেতে পারবেন না।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ১৭ বছরের কারাদণ্ড নিয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দি খালেদা জিয়া। বেশ কয়েকদিন ধরে তিনি অসুস্থ অবস্থায় বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মঙ্গলবার দুই শর্তে খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়