কেরানীগঞ্জে মুরাদ হত্যা মামলার আসামি কিশোর গ্যাং ইমন গ্রেফতার 

1527
কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ কেরানীগঞ্জের আলোচিত মুরাদ হত্যা মামলার অন্যতম আসামি কিশোর গ্যাং ইমন(২২) কে গ্রেফতার করে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। ১১ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) রাত ৮ টায় ইমনকে গ্রেফতারের কথা নিশ্চিত করেছেন কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মামুনুর রশীদ। মামলার ৫ নং আসামি ইমন  উপজেলার শিকারীটোলা গ্রামের মোঃ বাবুল মিয়ার ছেলে। সে হত্যাকাণ্ডের পর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে পলাতক ছিলো।
 মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও অভিযানে নেতৃত্বদানকারী এস আই আবুল কালাম আজাদ জানান, তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে
 কিশোর গ্যাং ইমনকে গ্রেফতার করতে স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় পটুয়াখালী জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। সর্বশেষ আজ বেলা ১২ টার দিকে পটুয়াখালী পৌরসভার আরামবাগ এলাকা হতে তাকে আটক করা হয়।
কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মামুনুর রশীদ জানান, মুরাদ হত্যা মামলা একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা। হত্যার পর থেকে আসামিদের গ্রেফতার করতে লাগাতার অভিযান চালাচ্ছিলো পুলিশ। ইমনকে গ্রেফতারের ফলে অন্য আসামিদের আটক করতে সুবিধা হবে। আশা করছি বাকিদেরও দ্রুত আটক করা যাবে।
উল্লেখ যে, গত ২৭ জুলাই জাতীয় পরিচয় পত্রের ছবি তোলার জন্য মুরাদ, নাফিউরসহ কয়েকজন নয়াবাজার ডিগ্রি কলেজে যান। এসময় লাইনে দাঁড়ানো নিয়ে শিলারিটোলা গ্রামের সাহেব আলী, রায়হান, সাগর, মিলন, সিয়াম ও আজয়ের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। পরে ছবি তুলে বাড়ি ফেরার পথে নড়ন্ডী এলাকায় আগে থেকে ওত পেতে থাকা সাহেব আলী, সাগর, রায়হান,ইমন ও তার সহপাঠীরা তাদের ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান। এতে গুরুতর আহত হন মুরাদ ও নাফিউর।  তাদেরকে উদ্ধার করে আশংকাজনক  অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে মুরাদের মৃত্যু হয়।
পরদিন মৃতের বাবা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে ইমনসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ৪/৫ জনের নামে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।