কেরানীগঞ্জে পুলিশের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ

1648

সামসুল ইসলাম সনেটঃ ঢাকার কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ আবু সালাম মিয়ার হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে ১৩ বছর বয়সী এক স্কুলছাত্রী। ১১ জুন (শুক্রবার) মডেল থানার শাক্তা ইউনিয়নের নতুন ভাড়ালিয়া গ্রামে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া একটি বাল্যবিবাহ বন্ধ করে দেয় পুলিশ।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আবু সালাম মিয়া পিপিএম জানান, জরুরি সেবা ৯৯৯ সূত্রে খবর পাই অত্র থানার শাক্তা ইউনিয়নের নতুন ভাড়ালিয়া গ্রামের বাচ্চু মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া সুমন সরদার তার নাবালিকা মেয়ে মাহি(১৩) এর সাথে বলসুতা গ্রামের সেন্টু রারির ছেলে রাসেল রারি(১৬) এর বিবাহ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। খবর পেয়ে পুলিশ উপ-পরিদর্শক মোঃ দিদার হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মেয়ের বাবা সুমন সরদার, বর পক্ষের পিন্টু(২১) ও শাওন১৮) কে আটক করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান সোহেলের ভ্রাম্যমাণ আদালতে উপস্থিত করলে আদালত মানবিক দিক বিবেচনা করে অর্থদণ্ড কার্যকর করে তাদের ছেড়ে দেয়। এবং বিয়েতে পাত্রীর বয়স ১৮ এবং ছেলের বয়স ২১ বছর পূর্ণ না হওয়ায় বিয়েটি বন্ধ করে দেয়া।

মেয়ের বাবা সুমনের নিকট হতে সাবালিকা না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দিবে না বলে ওয়াদা আদায় করে তাদের সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। সেই সাথে উপস্থিত লোকজনদের কে বাল্য বিবাহের অপকারিতা ও এর আইনানুগ শাস্তি বিষয়ে অবহিত করে পুলিশ।