কেরানীগঞ্জে  চাঞ্চল্যকর দারোয়ন হত্যার ৭ আসামি গ্রেফতার

3130

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

ঢাকার কেরানীগঞ্জ মডেল থানার কালিন্দী ইউনিয়ন এর গদারবাগ বাগান বাড়ি সোনার বাংলা আবাসিক প্রকল্প তিন রাস্তার ভিতর দারোয়ান সামশুল হককে ছুরিকাঘাতে হত্যার সাথে জড়িত ৭ আসামীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই শেখ আবজালুল হক বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃতরা হলো কালিন্দী ইউনিয়নের নেকরজবাগের জাহিদের বাড়ীর ভাড়াটিয়া এবং শুক্কুর চৌকিদারের ছেলে ১.হৃদয় হোসেন(১৭)। তার গ্রামের বাড়ি বরিশাল জেলার মুলাদীতে। ২.মোঃশামীম (২৮), সে নেকরজবাগ এলাকার মোঃ হোসেনের ছেলে। ৩. সাগর(১৭), পিতা গিয়াসউদ্দিন, সে কালিন্দীর বাবু হাজীর বাড়ীর ভাড়াটিয়া, তার গ্রামের বাড়ী বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে। ৪.আমজাদ হোসেন(১৫) পিতা, শাজাহান খান, সাং পশ্চিম বরিশুর তার গ্রামের বাড়ী শরিয়তপুর। ৫.সাব্বির হোসেন, পিতা লুৎফর সাং আমান হাজীর বাড়ী, কালিন্দী ঘাট, গ্রামের বাড়ী মাদারীপুর জেলার বাংলাবাজার এলাকায়। ৬. দেলোয়ার হোসেন(১৯), পিতা আমান, নারকেলবাগ সাইদুরের বাড়ীর ভাড়াটিয়া, গ্রামের বাড়ীর বরিশালের মুলাদীতে। অপর আসামীর নাম মোক্তার হোসনে, পিতা জামাল হোসেন। তার গ্রামের বাড়ী কুমিল্লা জেলার মুরাদনগরে। সে নেকরজবাগের ইমাম বাড়ীতে ভাড়া বাড়ীতে থাকে।

তিনি জানান,পুলিশ সুপার ঢাকার নির্দেশনায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কেরানীগঞ্জ সার্কেল), মোঃ শাহাবুদ্দিন কবীরের সার্বিক তত্ত্বাবধানে উক্ত অভিযান পরিচালিত হয়।

তিনি জানান, প্রথমিক জিজ্ঞেসা বাদে আসামীরা হত্যায় জড়িত ছিল বলে স্বীকার করেছেন।
জিজ্ঞেসা বাদে আসামীরা গোডাউনে ছিনতাই করার উদ্দেশ্য তাকে হত্যা করা হয়।

উল্লেখ্য গত ০৭ মে ২০২১ কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন জিনজিরা ইউনিয়নের আতাশূরে রতন মিয়ার একটি গোডাউনের ছিনতাই করার উদ্দশ্যে দারোয়ান শামসুল হক (৪৪) কে রাতের কোনো এক সময় কে বা কারা ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পরে কালিন্দী ইউনিয়ন এর গদারবাগ বাগান বাড়ি সোনার বাংলা আবাসিক প্রকল্প তিন রাস্তার ভিতর ফেলে রাখে।
তবে নিহতের বাড়ির ঠিকানা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গড়াই পাড়া হাজী মোসলেম উদ্দিনের ছেলে। এব্যাপারে নিহত সামশুল হকের ভাতিজা বাদী হয়ে একটি এজাহার করেন।
এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কেরানীগঞ্জ সার্কেল), মোঃ শাহাবুদ্দিন কবীর বলেন, দারোয়ান সামশুল হক হত্যার চাঞ্চল্য ঘটনার সাথে জড়িতদের তথ্যেপ্রযুক্তির সহায়তায় অতিদ্রুত আটক করা গেছে। আসসামীরা সবাই পেশাদার ছিনতাইকারী, মাদকাসক্ত এবং কিশোর গ্যাঁংয়ের সদস্য।