কেরানীগঞ্জে একাকিত্ব কাটাতে আত্মহত্যা

806

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ স্বামীকে রেখে স্ত্রী প্রবাসে, মেয়ে বিবাহিত হওয়ায় মেয়েও থাকেন শশুর বাড়ি আর এক মাত্র ছেলে পরিবহন শ্রমিক হওয়ায় সেও থাকে গাড়িতে কখনোবা অন্য বাড়িতে। সব থাকতেও একাকী জীবনে মেনে নিতে পারছিলেন না কেরানীগঞ্জ মডেল থানার হযরতপুর ইউনিয়নের লংকারচর গ্রামের হযরত আলীর ছেলে কবির হোসেন। সে অভিমানে সবাইকে পর করে তিনিও পাড়ি জমালেন না ফেরার দেশে।

৬ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকাল ৯ টার দিকে প্রতিবেশীরা নির্জন ঘরে দরজা খোলা অবস্থায় আড়ার সাথে রশিতে ঝুলা কবিরের লাশ দেখে প্রথমে স্থানীয়দের ও পরে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ (মিটফোর্ড) হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

এব্যাপারে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন আর রশীদ জানান, ধারণা করা হচ্ছে তিনি স্ত্রী-সন্তানকে কাছে না পেয়ে একাকিত্ব বোধ করছিলেন। মানষিক চাপেই হয়তো তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এব্যাপারে একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।