কেরানীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানকে র‍্যাবের মারধর, হত্যার হুমকি

135
কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ প্রতিমা বিসর্জনকালে কেরানীগঞ্জের আগানগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর শাহ খুশিকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ৮  র‌্যাব  সদস্যদের বিরুদ্ধে। গতকাল বুধবার (৫ অক্টোবর)  রাত সাড়ে ৮ টার দিকে আগানগর নগরমহল ঘাট এলকায় এ ঘটনা ঘটে। যানজট নিরসনে চেয়ারম্যান নিজেই র‍্যাবের একটি সিভিল মাইক্রোবাসকে সরাতে গেলে ঘটনার সূত্রপাত হয় বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা।
ঘটনার একপর্যায়ে খুশিকে মারতে মারতে একটি মার্কেটের ভিতরে নিয়ে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগও পাওয়া গেছে। মারধরে কারণে চেয়ারম্যানের পড়নে থানা সাদা পাঞ্জাবিটি ছিড়ে যায়।
পরে প্রতিমা বিসর্জন দিতে ও দেখতে আসা লোকজন গাড়িসহ র‌্যাব সদস্যদের অবরুদ্ধ করে ফেলে। খবর পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে র‌্যাব সদস্যদের উদ্ধার করে নিয়ে যান।
আগানগর ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার মো. শাহীন জানান, রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রতিমা বিসর্জন দিতে আসা লোকজনের চাপে  নাগরমহল বেড়িবাঁধ এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। এ সময় চেয়ারম্যান নিজেই যানজট নিরসনে কাজ করছিলেন। এসময়
তিনি একটি মাইক্রোবাসকে (ঢাকা মেট্রো খ ১২-৮৬৫১) বেড়িবাঁধ থেকে সরিয়ে দিতে চাইলে চালকের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এর জেরে ওই গাড়িতে সাদা পোশাকে থাকা র‌্যাবের কয়েক সদস্য বের হয়ে চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর শাহ খুশিকে মারধর শুরু করেন। মারতে মারতে তাকে পাশের একটি মার্কেটের ভেতর নিয়ে যান।
সেখানে তার পরনের পোশাক ছিঁড়ে ফেলে র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় চেয়ারম্যান তার পরিচয় দিলে তাকে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগাল করে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করার হুমকি দেন।
ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় কয়েক ব্যক্তি মার্কেটের মধ্যে ঢুকে চেয়ারম্যানকে বাঁচাতে গেলে তাদেরও মারধর করে র‌্যাব সদস্যরা। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে কয়েক হাজার জনতার বিক্ষোভের মুখে র‌্যাব সদস্যরা গাড়ি নিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে
উর্ধতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে র‍্যাব সদস্যরা ছাড়া পায়।
জানা গেছে, ওই গাড়ীতে সাদা পোশাকে র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার ৮ সদস্য ছিলেন। তারা হলেন, ডিএডি কাউসার, কর্পোরাল আহসান হাবিব, সৈনিক শাহান, সারোয়ার, এএসআই শরীফ, কর্পোরাল আহসান, জুবায়ের, ও গাড়ী চালক সৈনিক মনির।
এবিষয়ে জানতে চাইলে ডিএডি কাউসার বলেন, একটা ভুল বোঝাবুঝি থেকে অনাকাঙ্ক্ষিত এ ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টির ব্যাপারে উর্ধতন কর্মকর্তারা অবগত রয়েছেন।
কেরানীগঞ্জ সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবির বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসে র‌্যাব সদস্যদের নিরাপদে সরিয়ে এনেছি। বিষয়টি উর্ধতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে।